ক্যাসিনো কাণ্ড ও দুদকে অভিযোগের প্রেক্ষিতে এমপি রতনের উপস্থিতিতে ঢাকায় বৈঠকে বসতে নারাজ মতিউর

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

প্রকাশিতঃ ২৫ নভেম্বর ২০১৯ সময়ঃ দুপুর ২ঃ৪১
ক্যাসিনো কাণ্ড ও দুদকে অভিযোগের প্রেক্ষিতে এমপি রতনের উপস্থিতিতে ঢাকায় বৈঠকে বসতে নারাজ মতিউর
ক্যাসিনো কাণ্ড ও দুদকে অভিযোগের প্রেক্ষিতে এমপি রতনের উপস্থিতিতে ঢাকায় বৈঠকে বসতে নারাজ মতিউর

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জ-১ (তাহিরপুর, জামালগঞ্জ, ধর্মপাশা ও মধ্যনগর) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় বিতর্কিত সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপির উপস্থিতিতে ঢাকায় বৈঠকে বসতে নারাজ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব মতিউর রহমান। দলীয় সুত্রে জানা যায়, জেলার ১৪ ইউনিটের মধ্যে ২ ইউনিটে সম্মেলন শেষ করে শনিবার কমিটি ঘোষণা করা হলেও তাহিরপুর, জামালগঞ্জ, ধর্মপাশাসহ জেলার অন্য উপজেলা গুলোর সম্মেলনের তারিখ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্ধের অদৃশ্য চাঁপে পেছানো হয়েছে। 

সুত্র জানায়, স্থানীয় সংসদ সদস্যগণকে উপস্থিত রেখে সম্মেলন করার জন্য ইউনিটগুলোর সম্মেলনের তারিখ পেছানো হয়। এমন উদ্ভট পরিস্থিতিতে আগামীকাল মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) 

সুনামগঞ্জের উপজেলা ইউনিটগুলোর সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণের জন্য পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি, জেলার অন্যান্য আসনের সংসদ সদস্য, সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক, সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্ধের অংশ গ্রহণে ঢাকায় বৈঠকে বসার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ওই বৈঠকে বিতর্কিত সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপিকে রাখতে আপত্তি জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব মতিউর রহমান।

ঢাকার ওই বৈঠকে সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা কেন্ত্রীয় যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্যসহ জেলার ৫ জন সংসদ সদস্য এবং জেলা 

আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব মতিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন’র অংশ গ্রহণে জেলার অন্যান্য উপজেলাগুলোর সম্মেলনের তারিখ ফের চূড়ান্ত করার আভাস দেয়া হয়। জেলা আওয়ামী লীগের একাধিক দায়িত্বশীল নেতা জানিয়েছেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের উপস্থিতিতে বৈঠক করতে সম্মত নন। তিনি সাংসদ রতনকে বৈঠকে রাখতে আপত্তি জানিয়েছেন।আপত্তির বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্ধ বলেন, এমপির রতনের বিরুদ্ধে সম্প্রতি ক্যাসিনো কাণ্ডে জড়িত থাকাসহ নানা দুর্নীতির অভিযোগ উঠায় তার বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, তার ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়েছে, তার অঢেল সম্পদ নিয়ে নানামুখী প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ঢাকায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্ধ জেলার অন্যান্য সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ জানান, দুদুকের অনুসন্ধান ও তদন্ত সম্পন্ন না হওয়া অবধি আপাতত এমপি রতনের উপস্থিতি বা অংশ গ্রহণে যে কোন ধরণের বৈঠক প্রশ্নবিদ্ধ হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুদ্ধি অভিযানের যে নির্দেশনা দিয়েছে তা উপেক্ষিত হবে বলে মনে করেন জেলা আওয়ামী লীগ’র কোন 

কোন নেতৃবৃন্দ। সোমবার জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক এমপি 

আলহাজ্ব মতিউর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ন সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপিসহ ঢাকায় বৈঠকের কথা আমাকে জানানো হয়েছিল। আমি বলেছি, দুদকের অনুসন্ধান ও তদন্ত সম্পন্ন না হওয়া অবধি এমপি রতনের উপস্থিতিতে কোন বৈঠকে আমি যাব না। তিনি আরো বলেন, দুদকে যেহেতেু জেলার এ সংসদ সদস্য’র ব্যাপারে আলোচিত ক্যাসিনোকাণ্ড, ঘুষ দুর্নীতি, চাঁদাবাজিসহ জ্ঞাত আয় বহির্ভুত অঢেল সম্পদের বিষয়ে অভিযোগ রয়েছে এবং অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুদক তদন্তে নেমেছে তাই আপাতত তাকে নিয়ে কোন বৈঠকে বসলে দুদকের তদন্ত কাজ প্রভাবিত ও প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ার শংকা তৈরী হবে সর্বমহলে।

এ বিষয়ে কথা বলতে সাংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপির ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে কল করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

বার্তাজগৎ২৪/ এম এ

Share on: