'গুমনামি'তে নেতাজী চরিত্রে প্রসেনজিৎ

বার্তা‌জগৎ২৪ ডেস্কঃ

প্রকাশিতঃ ১৮ অগাস্ট ২০১৯ সময়ঃ রাত ১০ঃ২০
'গুমনামি'তে নেতাজী চরিত্রে প্রসেনজিৎ
'গুমনামি'তে নেতাজী চরিত্রে প্রসেনজিৎ


আফজালুর ফেরদৌস রুমন:

ভারতীয় স্বাধীনতা সংগ্রামী ও আজাদ হিন্দ ফৌজের সংগঠক ও সর্বাধিনায়ক নেতাজি সুভাস চন্দ্র বোসকে নিয়ে রহস্যের যেন কোন শেষ নেই। ১৯৪৫ সালের ১৮ অগাস্ট শেষবারের মতো প্রকাশ্যে দেখা গিয়েছিল নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুকে। নথিপত্র হিসাবে তাইওয়ানে একটি বিমানে ভ্রমন করছিলেন তিনি। ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায় চলন্ত অবস্থায় ভেঙে পড়েছিল সেই বিমান, অথচ বিমানের ধ্বংসাবশেষ অথবা নেতাজীর দেহ উদ্ধার করা যায় নি কখনো। তারপর থেকেই তার মৃত্যু এবং অন্তর্ধান নিয়ে রহস্য জমাট বাঁধে। সেই সময় অনেকেই বহুবার দাবি করেছেন, বেঁচে আছেন নেতাজী। কিন্তু কোনও নির্ভরযোগ্য প্রমাণ কেউ দেখাতে পারেন নি। পাশাপাশি, তাঁর মৃত্যুর প্রমাণও পাওয়া যায় নি আজ পর্যন্ত।

এসব রহস্য নিয়েই ভারতের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রকাশ করা হয়েছে কলকাতার জনপ্রিয় এবং আলোচিত পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় নেতাজীর জীবন নিয়ে নির্মিত ‘গুমনামি’ সিনেমার টিজার। নেতাজী সুভাসচন্দ্র বোসের চরিত্রে অভিনয় করেছেন দক্ষ এবং জনপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এই সিনেমায় নেতাজির মতো তার প্রায় মিলে যাওয়া লুক নিয়ে এরই মধ্যে প্রশংসা পাচ্ছেন তিনি এবং পুরো টিম।

জানা গেছে ‘গুমনামি’ সিনেমার লুকের জন্য বেশ ঝুঁকি নিতে হয়েছে প্রসেনজিতকে। ওজন বাড়ানো থেকে প্রস্থেটিক মেকআপ, প্রায় ঘন্টা তিনেকের পরিশ্রমের পর এই চেহারা তৈরি হয়েছে। আর এই অসাধ্য সাধন করেছেন মেকআপ শিল্পী সোমনাথ কুণ্ডু। সিনেমায় তার অভিনয়ের ঘোষণা আসার পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে দেয়া নানা সাক্ষাৎকারে প্রসেনজিৎ জানিয়েছিলেন, ”এই সিনেমাতে কাজ করার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন তিনি। নেতাজী কে সেলুলয়েড এর পর্দায় তুলে আনতে চেষ্টার কোন কমতি রাখেন নাই কেউই। টিজার দেখে অন্তত সেই বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

উল্লেখ্য সৃজিতের ‘গুমনামি’ সিনেমাটি অনুজ ধর ও চন্দ্রচূড় ঘোষের লেখা বই ‘কোনানড্রাম’ থেকে অনুপ্রাণিত। কথিত, ১৯৭০ সাল নাগাদ উত্তর প্রদেশে আর্বিভাব ঘটে গুমনামি বাবার। একাংশের মতে, এই বাবাই আসলে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বোস। তাঁর সঙ্গে নেতাজীর আদলের নাকি মিল পাওয়া গিয়েছিল। আজাদ হিন্দ ফৌজের কিছু চিঠিপত্রও তাঁর কাছে ছিল বলে জানা যায়। তবে কোন কিছুতেই রহস্যের মীমাংসা হয়নি।

সিনেমার টিজার রিলিজের দিন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় জানান, ”নেতাজি বিমান দুর্ঘটনায় মারা যাননি এবং এখনও বেঁচে আছে। এই কথা ছোটবেলা থেকে শুনে আসছি। এখনও সেই চর্চা অব্যাহত। তাঁর মৃত্যু আজও রহস্য। সিনেমার চিত্রনাট্য লেখার সময় যে অনুভূতির মধ্যে দিয়ে গিয়েছি আশা করব সিনেমাটা দেখার পর দর্শকেরও সেই একই উত্তেজনা হবে।

এবার দূর্গাপূজায় মুক্তি পাচ্ছে ‘গুমনামি’। সিনেমাতে প্রসেনজিৎ ছাড়াও অভিনয় করেছেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য, তনুশ্রী চক্রবর্তী। আজ প্রকাশ হয়েছে এই আলোচিত এই সিনেমার প্রথম পোষ্টার।।আশা করা যাচ্ছে নেতাজী সুভাসচন্দ্র বোসের চরিত্রে প্রসেনজিৎ নিরাশ করবেন না আমাদের।

বার্তাজগৎ২৪/এম এ/এফ এইচ পি