বন্ধ হতে পারে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য -ট্রাম্পের হুমকি।

প্রকাশিতঃ ২২ জুন ২০১৮ সময়ঃ দুপুর ১ঃ০০
বন্ধ হতে পারে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য -ট্রাম্পের হুমকি।
বন্ধ হতে পারে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য -ট্রাম্পের হুমকি।

বার্তা জগৎ২৪ ডেস্ক: ভারতের সঙ্গে আর বাণিজ্য না করার হুমকি দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করার প্রসঙ্গে রবিবার তিনি এমন ইঙ্গিত দেন। এই প্রসঙ্গে ব্যবসার ক্ষেত্রে ‘আমেরিকা প্রথম’ মোটো জিইয়ে রাখতে চান তিনি। ট্রাম্প বলেছেন, অন্য দেশের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য যা কিছু দরকার তা করবে আমেরিকা।

জি-৭ সামিটে ট্রাম্প বলেছেন, “ভারতে এমন কিছু পণ্য রয়েছে যার শুল্ক ১০০ শতাংশ। কিন্তু আমরা কিছু পরিবর্তন করিনি। আমরা এমন করতে পারি না। আমরা অনেক দেশের সঙ্গে এনিয়ে কথা বলেছি। সব দেশের সঙ্গে আমরা কথা বলব। এটা থামাতে হবে। নয়তো আমরা তাদের সঙ্গে ব্যবসা বন্ধ করে দেব।”

 

এনিয়ে ট্রাম্প ভারতের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান। ভারতকে দেখাতে চান শুল্কের জন্য কীভাবে তার দেশের রপ্তানি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বিশেষত কৃষিক্ষেত্র ও কৃষকদের উপর এর প্রভাব পড়ছে বেশি। “আমরা যেন পিগি ব্যাংক। সবাই লুট করছে। এর শেষ হওয়া দরকার।” বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এবছর গোড়ার দিকে হারলে-ডেভিডসন বাইকের অতিরিক্ত শুল্ক নিয়ে ভারতের সমালোচনা করেছিলেন ট্রাম্প। একে “অনুচিত” বলেছিলেন তিনি। এবার তিনি বললেন, ভারতে সরকার সম্প্রতি ৫০ থেকে ৭৫ শতাংশ শুল্ক কমানোর যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা যথেষ্ট নয়। আমেরিকা মোটরসাইকেলের উপর “জিরো ট্যাক্স” আরোপ করা উচিত। এনিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনায় বসার কথাও জানিয়েছেন ট্রাম্প। বলেছেন, ভারতের এক “বিখ্যাত ভদ্রলোক” তাঁকে বলেছেন মোটরসাইকেলের উপর শুল্ক কমানো হয়েছে। ৫০ থেকে ৭৫ শতাংশ শুল্ক এক্ষেত্রে কমানো হয়েছে। কিছু ক্ষেত্রে ১০০ শতাংশ পর্যন্ত কমতে পারে।

 

এর আগে কানাডার ক্ষেত্রেও একই পদক্ষেপ নিয়েছিলেন ট্রাম্প। পরপর টুইট করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে বলেছিলেন তিনি “মিথ্যে বিবৃতি” দিয়েছেন। বলেছেন, কানাডা মার্কিন পণ্যগুলির উপর বড়সড় শুল্ক বসিয়েছে। এর ফলে মার্কিন কৃষক, কর্মী ও কোম্পানিগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

Share on: