ডিনারের দাওয়াত দিলেন সি আর সেভেন, গ্রহণ করলেন এল এম টেন

বার্তা জগৎ ডেস্ক:

প্রকাশিতঃ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ সময়ঃ সকাল ১০ঃ৪৫
ডিনারের দাওয়াত দিলেন সি আর সেভেন, গ্রহণ করলেন এল এম টেন
ডিনারের দাওয়াত দিলেন সি আর সেভেন, গ্রহণ করলেন এল এম টেন

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

ফুটবলপ্রেমীদের মধ্যে রোনালদো-মেসি নিয়ে তর্ক-বিতর্ক চললেও এই দুই তারকার সম্পর্কটা বেশ বন্ধুত্বপূর্ণ। কদিন আগেই মোনাকোয় চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র অনুষ্ঠানে, প্রতিদ্বন্দ্বি মেসির সঙ্গে ডিনার করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন রোনালদো।

এবার স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমে বার্সা তারকা জানালেন, নিমন্ত্রণ পেলে অবশ্য গ্রহণ করবেন তিনি।

এক যুগেরও বেশি সময় ধরে পুরো ফুটবল বিশ্ব মাতিয়ে রেখেছেন আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসি ও পর্তুগীজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। যেখানে এদুজন যেন একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বি। মাঝে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি দুই ক্লাবে খেলায় নিজেদের ছাড়িয়ে যাওয়ার লড়াইটাও মাত্রা পায় বেশ কয়েকগুন।যদিও সমান পাঁচবার করে বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার জেতেন মেসি এবং রোনালদো।

এ দুই ফুটবলারের মধ্যে কে সেরা? এ নিয়ে তাদের ভক্তদের মাঝে তুমুল তর্কের বন্যা বয়ে যায় অনায়াসে। এত কিছুর পরও মেসি ও রোনালদোর মধ্য পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ আছে যথেষ্ট। যদিও সম্পর্কটা বন্ধুত্বের না হলেও বেশ ভালো তা অকপটে বলাই যায়।

গত ৩০ আগষ্ট মোনাকোয় চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মেসি ও রোনালদো। যেখানে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন তারা। পরে উপস্থাপকের এক প্রশ্নের জবাবে পর্তুগীজ ফরোয়ার্ড মেসির সাথে ভবিষ্যতে ডিনার করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। সি আর সেভেনের কথা শুনে সেদিন হেসেছিলেন লিওনেল মেসি। জবাবে অবশ্য কিছু বলেননি বার্সা তারকা। তবে এবার মুখ খুললেন মেসি।

স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম স্পোর্ততে দেয়া এক সাক্ষাতকারে মেসি জানান, রোনালদোর নিমন্ত্রন পেলে গ্রহণ করবেন তিনি। রোনালদো আমন্ত্রনের প্রসঙ্গে মেসি বলেন, উয়েফার অনুষ্ঠানে আমরা দুজন অনেক্ষণ কথা বলেছি। আমি জানি না, আমাদের কখনো একসঙ্গে ডিনার যাওয়া হবে কিনা। আমাদের প্রত্যেকের জীবন এবং নিজস্ব অঙ্গিকার রয়েছে। তবে নি:সন্দেহে আমি রোনালদোর ডিনারের আমন্ত্রণ গ্রহণ করবো।

এদিকে,গেলো বছর নৈশক্লাবে মারামারি আর হাসপাতালে গুলিছুড়ে আলোচনায় আসেন বার্সা মিডফিল্ডার আরদা তুরান। সেই ঘটনার বিচার হলো এতদিনে। প্রায় এক বছর শুনানির পর, বুধবার তুরানকে ২ বছর ৮ মাসের স্থগিত কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন তুরস্কের আদালত। তবে এখনই জেলে যেতে হচ্ছে না তাঁকে।

২০১৫ সালে ৩৪ মিলিয়ন ইউরোতে বার্সার ডেরায় যোগ দেন তুরান। কিন্তু বার্সালোনায় সুযোগ কাজে লাগাতে না পারায়, বেশিরভাগ সময় সাইডবেঞ্চে হয়ে যায় তার ঠিকানা। ৩৬ লিগ ম্যাচে ৫ গোল ও দুটি লিগ শিরোপা জেতার পর,গত বছর বার্সা থেকে ধারে তুরস্কের ক্লাব ইস্তাম্বুল বাসাকসেহিরে যোগ দেন আরদা তুরান। যদিও এ ক্লাবে থাকবেন এই মৌসুম পর্যন্ত। এরপর আবারো বার্সেলোনায় ফিরবেন এই তুর্কি মিডফিল্ডার।

বার্তা‌জগৎ২৪.কম/এফ এইচ পি

Share on: