ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের নেতৃত্বের আলোচনায় যারা

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

প্রকাশিতঃ ১৮ অক্টোবর ২০১৯ সময়ঃ দুপুর ১২ঃ৫৯
ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের নেতৃত্বের আলোচনায় যারা
ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের নেতৃত্বের আলোচনায় যারা

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্কঃ

ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের নেতৃত্বে আসছেন কারা? জানার কৌতূহল সবারই। কারণ এর ওপর নির্ভর করবে- শুদ্ধি অভিযানের মতো বড় ধাক্কার পর কেমন হবে যুবলীগের কমিটি।

যুবলীগের সাবেক নেতাদের চাওয়া- তরুণ, যুববান্ধব ও সৎ নেতৃত্ব। আর বর্তমানরা চান, ছাত্র ও যুবরাজনীতির অভিজ্ঞতাসমৃদ্ধ কর্মিবান্ধব, গতিশীল ও সহজপ্রাপ্য কাউকে।

আগামী ২৩ নভেম্বর যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেস। তার আগেই ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন হতে পারে। আগামীকাল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে গণভবনে যুবলীগের বৈঠকে মহানগর যুবলীগের সম্মেলনের তারিখ নিধারিত হতে পারে।  

এরইমধ্যে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন শীর্ষ পদের প্রত্যাশীরা। যদিও তাদের অনেকেই প্রকাশ্যে নিজ নিজ প্রার্থিতার বিষয়ে এখনই ঘোষণা দিচ্ছেন না। ক্যাসিনো, মাদক ও টেন্ডারের সঙ্গে সম্পৃক্ততায় কারো কারো নাম আসায় অনেকটা চুপচাপই রয়েছেন তারা। তবে সম্ভাব্য প্রার্থীদের অনেকেই বঙ্গবন্ধু অভিনিউ ও ধানমন্ডির দলীয় কার্যালয়ে নিয়মিত যাওয়া-আসা করছেন। যোগাযোগ বাড়িয়েছেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে।

দলের বেশিরভাগ নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বরাবরের চেয়ে এবার সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতৃত্ব নির্বাচনের প্রেক্ষাপট সম্পূর্ণ ভিন্ন হবে। তারা বলছেন, এবার সরাসরি নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই তিনি নিজেই বিভিন্ন মাধ্যমে সম্ভাব্য প্রার্থীদের সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। এবার সংগঠনে স্থান পাবেন পরিচ্ছন্ন ইমেজ, দক্ষ সংগঠক, ত্যাগী নেতারা। এ ছাড়া ছাত্রলীগের ব্যাকগ্রাউন্ড আছে এরকম দেখে নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে। সম্ভাব্য প্রার্থীদের সম্পর্কে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ইতোমধ্যেই খোঁজ-খবর নেয়া শুরু করেছে।

জানা গেছে, আসছে ঢাকা মহানগর যুবলীগের শীর্ষ দুই পদের প্রতিযোগিতায় এগিয়ে আছেন ঢাকা মহানগর যুবলীগের বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন। তিনি এই সম্মেলনের মাধ্যমে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন। যদিও চলমান ক্যাসিনো কাণ্ডে তার নাম এসেছে ঘুরেফিরে। সভাপতি পদের জন্য আরো আলোচনায় আছেন মহানগর উত্তর যুবলীগের প্রথম সহ-সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল।  

সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আলোচনায় আছেন ঢাকা মহানগর যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তাসভীরুল হক অনু। তিনি মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তরুণ সমাজে তার ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। এছাড়া সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আলোচনায় আছেন মহানগর উত্তর যুবলীগের উপ গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক কাইসুর রাহমান সিদ্দিকি সোহাগ। তরুণ ও ক্লিন ইমেজের নেতা হিসেবে তার আলাদা একটা গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তিনি সাবেক ছাত্রনেতা থেকেই যুবলীগের রাজনীতিতে এসেছেন। 

তবে আলোচনা-সমালচনা যাই থাক না কেন, নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি তার নিজস্ব মাধ্যমে খোঁজখবর নিয়ে যোগ্যদেরই নির্বাচন করবেন বলে তৃণমূল থেকে কেন্দ্রীয় নেতাদের বিশ্বাস।

বার্তাজগৎ২৪/ এম এ 

 

 

 

Share on: