ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ক্ষমা চেয়ে ঢাকা আসলেন শামছেল হক চিশতী

বার্তা জগৎ২৪ ডেস্ক

প্রকাশিতঃ ৯ অক্টোবর ২০১৮ সময়ঃ রাত ৩ঃ৩০
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ক্ষমা চেয়ে ঢাকা আসলেন শামছেল হক চিশতী
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ক্ষমা চেয়ে ঢাকা আসলেন শামছেল হক চিশতী

 

এদেশে বাউল শামছেল হক চিশতীকে আলেমদের তোপের মুখে পড়ে ক্ষমা চাইতে হয়। এটা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ!

 

গত শনিবার (৬ অক্টোবর) রাত ৯ টার দিকে জেলা শহরের নিয়াজ মুহম্মদ স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসনের উন্নয়ন মেলায় গান গাইতে গিয়ে তোপের মুখে পড়েন তিনি। কোরআন অবমাননার অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মাদ্রাসা ছাত্রদের তোপের মুখে পড়েন দেশ পড়েন বরেণ্য বাউল শিল্পী সামছেল হক চিশতী।

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম উদ্দিন বলেন, বাউল শিল্পী সামছেল হক চিশতীকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। তিনি জানান, শিল্পী সামছেল হক চিশতীর গান চলাকালে মাদ্রাসা ছাত্ররা বিক্ষোভ শুরু করেন এবং এক পর্যায়ে তাকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

 

অবশ্য বাউল সাধক সামছেল হক চিশতী ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘মাগো আমি স্কুলেতে আর পড়বো না হাট্টিমা টিম টিম, মাদ্রাসাতে পড়বো গিয়ে আলিফ-লাম-মীম‘- এই বাক্যের সঙ্গে মিল রেখে আমি গান গাইছিলাম। তবে আমি অসুস্থ থাকায় গানের কথা এলোমেলো হয়ে গেছে। আমি কী বলেছি মনে করতে পারছি না। এই অনাকাঙ্খিত ভুলের জন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী।’

 

বাউলের এই সামান্য ভুলকে আলেম ওলামারা ক্ষেপে যায়। তাদেরকে কটুক্তি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে। আলেমদেরকে নিয়ে বাউল শামছেল হক চিশতী কটুক্তির ঘটনায় থানা হেফাজতে থাকা অবস্থায় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সাথে আলেমদের বৈঠকের মাধ্যমে বিষয়টির সুরাহা হয়েছে। রাত ১২টা নাগাদ আলোচনা শুরু হলে শাসছেল হক চিশতী উপস্থিত সকলের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চান।

 

এসময় বাউল বলেন, আমি আপনাদের এলাকার সন্তান। আমি সবার কাছে ক্ষমা চাইছি। আমি কিছুদিন পূর্বে সড়ক দূর্ঘটনায় গুরুত্বর আহত হয়েছি। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।

 

এসময় জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান তাকে ভবিষ্যেতে এসব বিষয়ে সতর্ক ও সংবেদনশীল হওয়ার কথা বলেন।

পরে তিনি মুচলেকা দিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন।

 

বার্তাজগৎ২৪/এমএ