স্টেডিয়ামটি যেন এক বিশাল বাগান

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

প্রকাশিতঃ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ সময়ঃ সন্ধ্যা ৬ঃ২৫
স্টেডিয়ামটি যেন এক বিশাল বাগান
স্টেডিয়ামটি যেন এক বিশাল বাগান

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

২০০৮ সালে যারা ইউরোপিয়ান ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ দেখতে অস্ট্রিয়ার ক্লাগেনফুর্টে ওয়ের্দারসি ফুটবল স্টেডিয়ামে গিয়েছেন তারা হয়ত এখন গেলে অবাকই হবেন। অস্ট্রিয়ার ক্লাগেনফুর্টে ওয়ের্দারসি ফুটবল স্টেডিয়াম এখন আর স্টেডিয়াম নেই। হয়ে গেছে বিশাল বাগান। কারণ, ৩২ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়ামজুড়ে শিল্পী ক্লাউস লিটম্যান আর্ট প্রজেক্টের অংশ হিসেবে রোপণ করেন ৩০০টির অধিক গাছ।

এসব গাছের মধ্যে আছে- ফিল্ড ম্যাপল, ওক, হোয়াইট উইলো, হর্নবিম, আস্পেন প্রভৃতি। সারি সারি গাছ দেখে মনে হবে, এটা এক গভীর অরণ্য।

মূলত, অধিক হারে গাছ কাটা ও জলবায়ুর পরিবর্তন সংক্রান্ত বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতেই এই উদ্যোগ নেন ক্লাউস লিটম্যান। দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে এই স্টেডিয়াম।

স্টেডিয়ামে গাছবার্তা সংস্থাকে লিটম্যান জানিয়েছে, ম্যাক্স পেইন্টনারের ছবি ‘দ্য আনেনডিং অ্যাট্রাকশন অফ নেচার’-এ গাছে পূর্ণ স্টেডিয়াম দেখা গেছে, যেটি দেখতে ভিড় করেছিল হাজার হাজার মানুষ। ডিসটোপিয়ান চিন্তাধারায় আঁকা সেই ছবিকে বাস্তবে রূপ দিতে এ পরিকল্পনা নিয়েছিলাম। অবশেষে তা বাস্তবে রূপ পেয়েছে। প্রকল্পটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ফর ফরেস্ট’।

এদিকে ক্লাগেনফুর্ট কর্তৃপক্ষের প্রকল্পের কারণে আগামী ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত স্টেডিয়ামটিতে কোনো ফুটবল ম্যাচ হবে না। অবশ্য ২৭ অক্টোবর গাছগুলো স্টেডিয়াম থেকে সরিয়ে নেওয়া হবে।

অস্ট্রিয়ার ক্লাগেনফুর্ট ফুটবল দল সে সময় পর্যন্ত দ্বিতীয় বিভাগে খেলার জন্য অন্য মাঠ ব্যবহার করবে।

বার্তা‌জগৎ২৪.কম/এফ এইচ পি