ঢাকা, বুধবার, ৭ মাঘ ১৪২৭, ২০ জানুয়ারী, ২০২১

Facebook Twitter Instagram Linkedin Youtube

Logo

গণপূর্তের করা টিএসসির খসড়া নকশা ‘মনঃপূত হয়নি’ ঢাবির

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:
প্রকাশিত: সোমবার, ০৪ জানুয়ারী, ২০২১, ০৯:১৩
গণপূর্তের করা টিএসসির খসড়া

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া চাহিদার আলোকে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) একটি খসড়া নকশা প্রস্তুত করেছে গণপূর্ত অধিদপ্তর। কিন্তু নকশাটি ‘মনঃপূত হয়নি’ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের৷ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে নকশাটিকে ‘মডিফাই’ করতে গণপূর্তকে কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

রোববার (৩ জানুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সভাকক্ষে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রকৌশলীদের একটি দলের বৈঠক হয়৷ ওই বৈঠকে টিএসসিকে ভেঙে নতুন করে গড়ার খসড়া নকশাটি উপস্থাপন করা হয়৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সভায় উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান, সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম সিকদার।

গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি ভবনটিকে তিনি আধুনিক ভবন হিসেবে দেখতে চান। সেই লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ভবনের নকশা প্রস্তুত করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও বিষয়টি নিয়ে উদ্যোগী হয়৷ টিএসসিকে নতুন করে গড়ার লক্ষ্যে সরকারের গণপূর্ত অধিদপ্তর কাজ করছে৷ কিছুদিন আগে গণপূর্তকে টিএসসি নিয়ে নিজেদের চাহিদাপত্র দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গণপূর্তের ওই সভা হলো।

সভার আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম সিকদার রোববার রাতে প্রথম আলোকে বলেন, ‘গণপূর্তকে আমরা যে চাহিদাপত্র দিয়েছিলাম, সেই আলোকে তারা একটি খসড়া নকশা প্রস্তুত করেছে। সেটিই সভায় উপস্থাপন করা হয়।

তবে খসড়া ওই নকশাটি আমাদের পুরোপুরি মনঃপূত হয়নি৷ তাই একে আরও মডিফাই করতে গণপূর্তের প্রকৌশলীদের আমরা কিছু পরামর্শ দিয়েছি৷ ওই পরামর্শের আলোকে নতুন একটি নকশা প্রণয়নের জন্য তাদের অনুরোধ করা হয়েছে৷ পরবর্তী নকশাটিতে আমাদের দেওয়া চাহিদা পূরণ হলে সেটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করা হবে৷ তাঁর অনুমোদনের পর গণপূর্ত অধিদপ্তর এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।’

গণপূর্তের খসড়া নকশায় টিএসসির বিদ্যমান সব ভবন ভেঙে নতুন তিনটি ভবন নির্মাণের কথা বলা হয়৷ টিএসসির সামনের প্রশস্ত ভবনটি ভেঙে একটি ছয়তলা ভবন এবং ভেতরের মিলনায়তনটি ভেঙে আরও একটি ছয়তলা ভবন নির্মাণের কথা বলা হয় সেখানে৷ এ ছাড়া টিএসসির ক্যাফেটেরিয়া ও অতিথিকক্ষের স্থলে ৯ তলা একটি ভবন নির্মাণের কথা বলেন গণপূর্তের প্রকৌশলীরা। ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী বললেন, টিএসসির স্বাতন্ত্র্য বজায় রেখেই সংস্কার করা হবে। টিএসসিতে এখন যে তিনটি ভবন আছে, এমন তিনটি ভবনেই সবকিছু হবে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের চাহিদা অনুযায়ী এই তিন ভবনেই প্রয়োজনীয় সম্প্রসারণ করা হবে। সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের জন্য বড় পরিসর ও ক্যাম্পাসের সবুজায়নসহ প্রয়োজনীয় সবকিছুকে প্রাধান্য দিয়েই নকশা প্রস্তুতের জন্য গণপূর্তের প্রকৌশলীদের অনুরোধ করা হয়েছে।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কেউ কেউ টিএসসির দৃষ্টিনন্দন ভবনটি ভেঙে ফেলার বিরোধিতা করেছেন৷ তাঁরা বলছেন, টিএসসিকে ভেঙে বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণের পাঁয়তারা চলছে। সংবাদ সম্মেলন করে টিএসসি ভেঙে ফেলার বিরোধিতা করেছে বামপন্থী ছাত্রসংগঠনগুলোর মোর্চা প্রগতিশীল ছাত্রজোট।

বার্তাজগৎ২৪ / এম এ

আরো পড়ুন:

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে, বাড়ছে পরিচ্ছন্নতা নিয়ে দুশ্চিন্তা

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফেব্রুয়ারিতে খুলছে স্কুল-কলেজ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩০ জানুয়ারী পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে



এসএসসিতে অটোপাসের দাবিতে মানববন্ধন

ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১, ০৪:১৪
এসএসসিতে অটোপাসের দাবিতে মানববন্ধন
এসএসসিতে অটোপাসের দাবিতে মানববন্ধন করছে শিক্ষার্থীরা

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ১০ মাস বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। স্কুল বন্ধ থাকায় সিলেবাস শেষ করতে পারেনি ২০২১ সালের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীরা। তাই তাদের দাবি, পরীক্ষা সরাসরি না নিয়ে মূল্যায়ন পদ্ধতিতে নিয়ে ফলাফল প্রকাশ করার। 

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক মানববন্ধনে পরীক্ষার্থীরা এমন দাবি জানায়। এসময় তারা আগামী ফেব্রুয়ারির মধ্যে অটোপাসের সিদ্ধান্ত নিতে সরকারকে অনুরোধ করে।

এসময় শিক্ষার্থীরা বলেন,১৮ বছরের নিচে কাউকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এসএসসি পরীক্ষার্থী সবাই ১৮ বছরের নিচে। পরীক্ষার আগে তাদের করোনা সংক্রমণ হলে তারা পরীক্ষা দিতে পারবেনা। এতে তাদের এক বছর সময় নষ্ট হবে।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা আরও বলে, স্কুল কার্যক্রম ১০ মাস বন্ধ ছিল। বলা হচ্ছে তিন মাস ক্লাসে আমাদের পরীক্ষা নিবে। তাহলে সবমিলিয়ে আমাদের কলেজে ভর্তি হতে হতে অক্টোবর চলে আসবে। এতে ভয়াবহ সেশনজট লাগবে।

আয়োজকেরা জানান, ফেসবুকে ‘২০২১ এসএসসি বাতিল চাই’ গ্রুপে দেশের বিভিন্ন স্কুলের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীরা যুক্ত আছে। সেখান থেকেই পরীক্ষার্থীদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজকের এই কর্মসূচি পালন করেছে।

বনানী বিদ্যানিকেতন স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থী উৎস বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের আবেদন আমাদের পূর্ববর্তী ফলাফল বিবেচনা করে, আমাদের অটোপাস দেওয়া হোক।


আরো পড়ুন:

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩০ জানুয়ারী পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফেব্রুয়ারিতে খুলছে স্কুল-কলেজ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে, বাড়ছে পরিচ্ছন্নতা নিয়ে দুশ্চিন্তা



মেয়াদোত্তীর্ণ পরিচয়পত্রে সংকটে শিক্ষার্থীরা

আবু বকর রায়হান
প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২১, ০৮:১৩
কুবি
ফাইল ফটো

ছয় সেমিস্টার শেষ না হতেই পরিচয়পত্রের মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় সংকটে পড়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকে অধ্যায়ণরত শিক্ষার্থীরা। ফলে ব্যাংক একাউন্ট খোলা, বিভিন্ন প্রশাসনিক কাজে মেয়াদ ছাড়া পরিচয়পত্র নিয়ে হয়রানির শিকার হচ্ছেন তারা। স্নাতক শেষ পর্যন্ত পরিচয়পত্র নবায়নের দাবি শিক্ষার্থীদের।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির তিন মাসের মধ্যেই পরিচয় পত্র পাওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু বাস্তবে শিক্ষার্থীরা প্রথম সেমিস্টারের চূড়ান্ত পরীক্ষার ফরম পূরণের আগে পরিচয়পত্র সংগ্রহ করতে পারেন না। পরিচয়পত্র নিতে শিক্ষার্থীদের জনতা ব্যাংকের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখায় সংশ্লিষ্ট হলেন নামে ১০০ টাকা পরিশোধ করতে হয়। ব্যাংক রসিদ সংশ্লিষ্ট হলে জমা দেওয়ার পরে প্রাধ্যক্ষের স্বাক্ষর সম্বলিত পরিচয় পত্র হাতে পায়। চার বছরের মাঝেই শিক্ষার্থীদের স্নাতক শেষ হবে ধরে হাতে লিখা এ পরিচয় পত্রের মেয়াদ প্রদানকালীন বছর সহ চার বছর দেওয়া হয়।

নিয়ম অনুসারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের পরিচয় পত্রের মেয়াদ গেল বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হয়ে গেছে।

তবে এই ব্যাচের অধিকাংশ বিভাগের শিক্ষার্থীদের স্নাতক ৬ষ্ঠ সেমিস্টার চূড়ান্ত পরীক্ষাই হয়নি। এতে করে বিভিন্ন জায়গায়  মেয়াদোত্তীর্ণ পরিচয় পত্র দেখিয়ে হয়রানির শিকার হচ্ছেন তারা।

প্রতিনিধির সাথে মেয়াদোত্তীর্ণ পরিচয় পত্র থাকা প্রায় দশজন শিক্ষার্থীর কথা হয়। এসময় তারা জানান,‘আমাদের স্নাতক শেষ হতে এখনো বছরখানেক বাকি। কিন্তু এর মধ্যেই আমাদের পরিচয়পত্রের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় মেয়াদ ছাড়া পরিচয়পত্র নিয়ে সংকটে পড়েছি। যদি প্রশাসন আমাদের পরিচয়পত্র নবায়ন না করে, তাহলে আমাদের হয়রানির মাত্রা আরো বাড়বে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী রবিউল ইসলাম বলেন, ‘আমি স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে ব্যাংকে গিয়েছিলাম। পরিচয় পত্রের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় আমি একাউন্ট খুলতে পারিনি।

অথচ আমার স্নাতক শেষ হতে এখনো প্রায় দেড় বছর বাকি। প্রসাশনের অবশ্যই শিক্ষার্থীদের পরিচয় পত্র নবায়ন করা প্রয়োজন।’

শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ জুলহাস মিয়া বলেন, এটি সম্মিলিত বিষয় প্রভোস্ট কমিটির মিটিংয়ে আমরা এ ব্যাপারে কথা বলবো। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ মো. জিয়া উদ্দিন বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণ করে পরিচয় পত্র নবায়নের আবেদন করলে আমরা অবশ্যই তাদের নতুন পরিচয় পত্র সরবরাহ করবো।’

পরিচয়পত্র নবায়নের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. আবু তাহের বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় সেশনজটের কারণে পরিচয়পত্রের মেয়াদ নিয়ে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে, সমাধানের পথ বের করা হবে।



আরো পড়ুন:

বিশ্বের ১০০ শক্তিশালী দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

হোয়াটসঅ্যাপের বিপরীতে ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে তুরস্কের বিপ

সুদানে ফের সহিংসতায় নিহত ৪৮

চায়ের সাথে যা খেতে মানা

ওয়াশিংটন ও ভার্জিনিয়ায় কারফিউ জারি

বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ স্মরণে কলকাতায় বিশেষ আয়োজন

বড় শাস্তির মুখে মেসি

ইসরাইলে করোনা টিকায় ১৩ জনের মুখ বিকৃত

কুড়িগ্রামে ফেলানী হত্যার ১০, আজও বিচার পায়নি পরিবার!

বিদ্যা সিনহা মিম বাঘায় শীতার্তদের পাশে দাঁড়ালেন

×
শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া চাহিদার আলোকে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) একটি খসড়া নকশা প্রস্তুত করেছে গণপূর্ত অধিদপ্তর। কিন্তু নকশাটি ‘মনঃপূত হয়নি’ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের৷ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে নকশাটিকে ‘মডিফাই’ করতে গণপূর্তকে কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। রোববার (৩ জানুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সভাকক্ষে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গণপূর্ত